মৃত ব্যক্তির কাছে কি বলা উচিত, যার গৃহে কেউ মারা যায় তাকে কি বলা হবে

মৃত ব্যক্তির কাছে কি বলা উচিত, যার বাড়িতে কেউ মারা যায় তাকে কি বলা উচিত

৯২১. হযরত উম্মু সালামা (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা)বলেছেনঃ তোমরা কোন রোগী বা মৃতের নিকট গেলে তার ভাল কথা বলবে। কারণ তোমরা যা কিছু বল ফিরিশতারা তা শুনে ‘আমীন’ বলেন। উম্মে সালামা (রা) বলেনঃ আবু সালামার ইন্তিকালের পর আমি রাসূলুল্লাহ (সা)-এর খেদমতে হাযির হয়ে বললামঃ ইয়া রাসূলুল্লাহ! আবু সালামা (রা) ইন্তিকাল করেছেন। তিনি বললেনঃ বল, হে আল্লাহ! আমাকে ও আবু সালামাকে মাফ করে দিন এবং এর পরিবর্তে আমাকে ভালো প্রতিফল দান করুন। আমি তাই বললাম। ফলে আল্লাহ আমাকে তার থেকে উত্তম স্বামী, মুহাম্মাদকে (সা) দান করলেন। (মুসলিম)


৯২২. হযরত উম্মে সালামা (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ (সা) কে বলতে শুনেছি, ‘যে ব্যাক্তি বিপদে পড়ে এই দুআ পড়বে। অর্থ “আমরা আল্লাহর জন্য এবং আমাদের তাঁরই দিকে ফিরে যেতে হবে। হে আল্লাহ! আমার বিপদে আমাকে নেকী দান করুন এবং যা হারিয়ে গেছে তার বদলে তার থেকে উত্তম বস্তু দান করুন।’ তাহলে মহান আল্লাহ তাকে তার বিপদের প্রতিদান দেন এবং সে যা কিছু হারিয়েছে তার বদলে তার থেকে ভাল জিনিস দেন। উম্মে সালামা (রা) বলেনঃ আবু সালামা যখন মারা গেলেন, তখন রাসূলুল্লাহ (সা) আমাকে যা বলতে নির্দেশ দিয়েছেন আমি তা বললাম। অতঃপর আল্লাহ আমাকে তার থেকে উত্তম সত্ত্বা অর্থাৎ রাসূলুল্লাহ (সা) কে (স্বামী হিসেবে) দান করলেন। (মুসলিম)


৯২৩. হযরত আবু মূসা (রা) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (সা) বলেছেন যখন কোন (মুসলমান) বান্দার সন্তানের ইন্তিকাল হয়, তখন মহান আল্লাহ ফিরিশতাদেরকে বলেনঃ তোমরা কি আমার বান্দার সন্তানকে নিয়েছো? ফিরিশতাগণ বলেনঃ হ্যাঁ, মহান আল্লাহ বলেনঃ তোমরা তার হৃদয়ের ফলটি ছিনিয়ে নিয়েছো? তাঁরা বলেন, হ্যাঁ। মহান আল্লাহ বলেনঃ আমার বান্দাহ কি বললো? ফিরিশতারা বলেনঃ (আপনারা বান্দাহ) আপনার প্রশংসা করল ও “ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন” পড়ল। মহান আল্লাহ বলেনঃ আমার বান্দাহর জন্য জান্নাতে একটি মহল তৈরি কর এবং তার নামকরণ কর ‘বাইতুস হামদ’   (তিরমিযী)


৯২৪. হযরত আবু হুরাইরা (রা) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (সা) বলেছেনঃ মহান আল্লাহ বলেছেন, যখন আমি আমার বান্দার দুনিয়া বাসীদের মধ্যে থেকে তার প্রিয় বস্তু কেড়ে নিই এবং সে তার উপর ধৈয্যধারণ করে তখন তার জন্য আমার কাছে জান্নাত ছাড়া আর কোন প্রতিদান থাকে না। (বুখারী)


৯২৫. হযরত উসামা ইবনে যাইদ (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী করীম (সা)-এর কন্যা তাঁর কাছে সংবাদদাতা পাঠালেন তাঁকে ডাকার ও এ খবর দেয়ার জন্য যে, তাঁর ছেলে মরণোন্মুখ। তিনি সংবাদদাতাকে বললেনঃ ফিরে গিয়ে তাকে জানাও, আল্লাহ তায়ালা যা নিয়ে গেছেন তা তাঁরই এবং যা তিনি দিয়েছেন তাও তাঁর এবং তাঁর কাছে প্রত্যেকটি জিনিসের একটি সময় নির্ধারিত রয়েছে। কাজেই সে যেন ধৈর্যধারণ করে এবং আল্লাহর থেকে নেকী লাভের আশা রাখে। তারপর সমগ্র হাদীসটি বর্ণনা করেছেন। (বুখারী ও মুসলিম)


 

Was this article helpful?

Related Articles

Leave A Comment?