হাঁচি সম্পর্কিত বর্ণনা

হাঁচি দানকারী আলহামদু লিল্লাহ বললে তার জবাব দেয়া মুস্তাহাব আর আলহামদু লিল্লাহ না বললে তার উত্তর দেয়া মাকরূহ আর হাই এবং হাঁচি ইত্যাদির শিষ্টাচারের বর্ণনা

৮৭৮. আবু হুরাইরা (রা) থেকে বর্ণিত। নবী (সা) বলেছেনঃ আল্লাহ হাঁচি পছন্দ করেন এবং হাই তোলা অপছন্দ করেন। কাজেই যখন তোমাদের কেউ হাঁচি দেয় এবং আলহামদু লিল্লাহ বলে, যে মুসলিমই তা শুনে তার উপর ইয়ারহামুকাল্লাহ বলা জরুরী হয়ে যায়। আর হাই উঠার ব্যাপারটি হয় শয়তানের পক্ষ থেকে। কাজেই তোমাদের কারো হাই উঠার উপক্রম হলে সে যেন তা সাধ্যমত চেপে রাখার চেষ্টা করে। কারণ কেউ হাই তুললে তাতে শয়তান হাসে।

ইমাম বুখারী হাদীসটি রিওয়ায়াত করেছেন।


৮৭৯. আবু হুরাইরা (রা) থেকে বর্ণিত। নবী (সা) বলেছেনঃ তোমাদের কেউ হাঁচি দিয়ে বলবেঃ আলহামদু লিল্লাহ এবং তার ভাই বা সাথী বলবেঃ ইয়ারহামুকাল্লাহ (আল্লাহ তোমার উপর রহমত বর্ষণ করুন)।  তার জন্য সে ইয়ারহামুকাল্লাহ বললে সে যেন বলে, “ইয়ারহামুকাল্লাহ ওয়া ইউসলিহু বালাকুম।”

ইমাম বুখারী হাদীসটি রিওয়ায়াত করেছেন।


৮৮০. আবু মূসা (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ (সা) কে বলতে শুনেছিঃ তোমাদের কেউ হাঁচি দিয়ে ‘আল্‌হামদু লিল্লাহ’ বললে তার জবাবে তোমরা ‘ইয়ারহামুকাল্লাহ’ বলবে এবং যদি সে   ‘আল হামদু লিল্লাহ’ না বলে তাহলে তোমরাও ‘ইয়ারহামুকাল্লাহ’ বলবে না।

ইমাম মুসলিম হাদীসটি রিওয়ায়াত করেছেন।


৮৮১. আনাস (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, দু’জন লোক নবী (সা)-এর সামনে হাঁচি দিল। নবী (সা) একজনের জবাবে ‘ইয়ারহামুকাল্লাহ’ বললেন এবং অপরজনকে কিছুই বললেন না। যে ব্যক্তিকে তিনি কিছুই বললেন না, সে বলল, অমুক হাঁচি দিলে তার জবাবে আপনি ‘ইয়ারহামুকাল্লাহ’ বললেন, আর আমার হাঁচির জবাবে কিছুই বললেন না? তিনি বলেনঃ এ ব্যক্তি হাঁচি দিয়ে ‘আলহামদু লিল্লাহ’ বলেছে কিন্তু তুমি তা বলোনি।

ইমাম বুখারী ও ইমাম মুসলিম হাদীসটি বর্ণনা করেছেন।


৮৮২. আবু হুরাইরা (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা) যখন হাঁচি দিতেন, মুখের উপর নিজের হাত বা কাপড় রাখতেন এবং হাঁচির আওয়াজ নিচু বা নিম্নগামী করতেন।

ইমাম আবু দাঊদ ও ইমাম তিরমিযী হাদীসটি বর্ণনা করেছেন। ইমাম তিরমিযী এটিকে হাসান ও সহীহ হাদীস বলেছেন।


৮৮৩. আবু মূসা (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, ইহূদীরা রাসূলুল্লাহ (সা)-এর উপস্থিতিতে হাঁচি দিত এবং আশা করত, তাদের হাঁচির জবাবে রাসূলুল্লাহ (সা) তাদেরকে বলবেনঃ ‘ইয়ারহামুকাল্লাহ’।  তিনি বলতেনঃ ‘ইয়াহদীকুমুল্লাহ ওয়া ইউসলিহু বালাকুম’ (আল্লাহ তোমাদের হিদায়াত দান করুন এবং তোমাদের অবস্থার সংশোধন করুন)।

ইমাম আবু দাঊদ ও ইমাম তিরমিযী হাদীসটি রিওয়ায়াত করেছেন। ইমাম তিরমিযী এটিকে হাসান ও সহীহ হাদীস বলেছেন।


৮৮৪. আবু সাঈদ আল খুদরী (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা) বলেছেনঃ যখন তোমাদের কেউ হাই তোলে, সে যেন তার হাত দিয়ে মুখ চেপে ধরে। কারণ (মুখ খোলা পেলে তাতে) শয়তান প্রবেশ করে।

ইমাম মুসলিম হাদীসটি রিওয়ায়াত করেছেন।


 

Was this article helpful?

Related Articles

Leave A Comment?