অনুমতি নেয়ার শিষ্টাচারের বর্ণনা

অনুমতি নেয়ার নিয়ম-নীতি

আল্লাহ তায়ালা বলেছেনঃ

“হে ঈমানদারগণ! তোমরা নিজেদের ঘর ব্যতীত অন্য কারো ঘরে অনুমতি না নিয়ে এবং ঘরওয়ালাদেরকে সালাম না দিয়ে প্রবেশ করো না। (সূরা নূরঃ ২৭)

তিনি আরো বলেছেনঃ

” আর যখন তোমাদের কিশোররা বালেগ হবে তখন তাদেরকেও তিমনি অনুমতি নিতে হবে যেমন তাদের বড়রা নেন। (সূরা নূরঃ ৫৯)

 

৮৭০. আবু মূসা (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা) বলেছেনঃ তিনবার অনুমতি চাইতে হবে। তোমাকে অনুমতি দেয়া হলে তো ভালো, অন্যথায় ফিরে যাও।

ইমাম বুখারী ও ইমাম মুসলিম হাদীসটি বর্ণনা করছেন।


৮৭১. সাহল ইবনে সা’দ (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা) বলেছেনঃ দৃষ্টিশক্তির কারণেই অনুমতি প্রার্থনার নিয়ম করা হয়েছে।

ইমাম বুখারী ও ইমাম মুসলিম হাদীসটি বর্ণনা করেছেন।


৮৭২. রিব’ঈ ইবনে হিরাশ (র) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমের গোত্রের এক ব্যক্তি আমাদের নিকট হাদীস বর্ণনা করেছেনঃ তিনি নবী (সা)-এর কাছে আসার জন্য অনুমতি চাইলেন। তখন তিনি ঘরের মধ্যে ছিলেন। লোকটি বলল, আমি কি প্রবেশ করব? রাসূলুল্লাহ (সা) তাঁর খাদিমকে বলেনঃ এ লোকটির কাছে যাও এবং তাকে অনুমতি নেবার পদ্ধতি শিখিয়ে দাও। তাকে বলতে বলঃ আসসালামু আলাইকুম, আমি কি ভেতরে আসতে পারি? লোকটি তা শুনে বললো, আসসালামু আলাইকুম, আমি কি ভেতরে আসতে পারি? নবী (সা) তাকে অনুমতি দিলেন এবং সে ভেতরে প্রবেশ করল।

ইমাম আবু দাঊদ এ হাদীসটি সিহীহ সনদে রিওয়ায়াত করেছেন।


৮৭৩.কিলদা ইবনুল হাম্বল (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি নবী (সা)-এর খেদমতে হাযির হলাম এবং সালাম না করে তার কাছে পৌঁছে গেলাম। নবী (সা) বলেনঃ ফিরে যাও, তারপর বলঃ আসসালামু আলাইকুম, আমি কি প্রবেশ করতে পারি?

ইমাম আবু দাঊদ ও ইমাম তিরমিযী হাদীসটি বর্ণনা করেছেন। ইমাম তিরমিযী এটিকে হাসান হাদীস বলেছেন।


 

Was this article helpful?

Related Articles

Leave A Comment?