সৃষ্টির নামে হলফ করা নিষেধ। কোন সৃষ্টিজীব বা বস্তুর নামে হলফ করা জায়েয নয়। যেমন, নবী-রাসূল, স্বর্গীয় দূত, কা’বা ঘর, আকাশ, পিতা, দাদা, জীবন, রুহ্, মাথা ইত্যাদির নাম করে কসম করা এবং অনুরূপ সুলতান বা সম্রাটের দান, অমুকের কবর, আমানত বা বিশ্বসত্মতার কসম করা। এসবের উল্লেখ করে কসম করা কঠোরভাবে নিষিদ্ধ

কোন সৃষ্টি যেমনঃ নবী-রাসূল, ফেরেশতা, কা’বা ঘর, আসমান, পিতা, দাদা, জীবন, রূহ, মাথা, সুলতানের জীবন, সুলতানের দান, আমুকের কবর এবং আমানত ইত্যাদির নামে শপথ করা কঠোরভাবে নিষেধ।

১৭০৯. হযরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর (রা) থেকে বর্ণিত। নবী করীম (স) বললেন, আল্লাহ তায়ালা তোমাদেরকে বাপ-দাদা ও পূর্ব-পুরুষের নামে কসম করতে নিষেধ করেছেন। কাউকে কসম করতে হলে সে যেন আল্লাহর নামে কসম করে কিংবা চুপ থাকে। (বুখারী ও মুসলিম)
সহীহ বুখারীর অপর বর্ণনায় রয়েছে, “কাউকে কসম করতে হলে সে যেন শুধুমাত্র আল্লাহর নামে কসম করে অথবা চুপ থাকে।”


১৭১০. হযরত আবদুর রহমান ইবন সামুরা (রা) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (স) ইরশাদ করেছন, “তোমরা কোন দেব-দেবী অথবা বাপ-দাদা ও পূর্বপুরুষের নামে কখনো কসম করবে না।” ( মুসলিম)


১৭১১. হযরত বুরাইদা (রা) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (স) ইরশাদ করেছেন, যে ব্যক্তি আল্লাহকে বাদ দিয়ে শুধু আমানতের বিশ্বস্ততা উল্লেখ করে কসম করল, সে আমাদের দলভুক্ত নয়। এটি সহীহ হাদীস। ইমামা আবু দাউদ সহীহ সনদে এ হাদীসটি বর্ণনা করেছেন।


১৭১২. হযরত বুরাইদা (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স) ইরশাদ করেছেন, কোন ব্যক্তি যদি এভাবে কসম করে, “আমি ইসলাম থেকে বাইরে।” (যেমন কেউ বলল আমি যদি এ কাজ করি তবে আমি মুসলমান নই।” অতএব যদি সে মিথ্যুক থাকে, তাহলে যে যেরূপ বলেছে সেরূপ হবে। আর যদি সে সত্যবাদী হয় তবে সে ইসলামের মধ্যে নিরাপদে প্রত্যার্বতন করতে পারবে না। ( আবু দাউদ)


১৭১৩. হযরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি এক ব্যক্তিকে বলতে শুনলেন। সে বলেছে কা’বার শপথ, আল্লাহ ছাড়া অন্য কিছুর নামে কসম করো না। কেননা আমি রাসূলুল্লাহ (স) কে বলতে শুনেছি, “যে ব্যক্তি আল্লাহ ছাড়া অন্য কিছুর নামে কসম করে, সে কুফরী অথবা শিরক করে।” ইমাম তিরমিযী (র) হাদীসটি বর্ণনা করেছেন এবং বলেছেন, এটি হাসান হাদীস।
আলেমগণের মতে “সে কুফরী করল বা শিরক করল” কথাটি তিরস্কার প্রকাশের জন্য বলা হয়েছে। যেমন অন্যত্র মহানবী (স) বলেছেন, রিয়া (প্রর্দশনের বা কপটতা) হল শিরকের অন্তর্ভুক্ত।


 

Was this article helpful?

Related Articles

Leave A Comment?