শিকার এবং গাবাদি পশু ও কৃষির ক্ষেতের পাহারা দেয়ার উদ্দেশ্য ছাড়া কুকুর পালন করা নাজায়েয

১৬৯০. হযরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (স) -কে বলতে শুনেছি, যে ব্যক্তি শিকার গবাদি পশুর রক্ষা করার উদ্দেশ্যে ছাড়া অন্য কোন উদ্দেশ্যে কুকুর পালন করবে; তার ভাল কাজের পুণ্য হতে দৈনিক ‘দুই কিরাত’ পরিমান পুণ্য কমে যাবে। ( মুসলিম) অন্য এক বর্ণনায় রয়েছে এক কীরাত।


১৬৯১. হযরত আবু হোরায়রা (রা) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (স) ইরশাদ করেছন, যে ব্যক্তি কুকুর পালন করে তার ভাল কাজের পুণ্য হতে দৈনিক এক কিরাত পরিমাণ পুণ্য কমে যায়। তবে কৃষিক্ষেত ও গবাদি পশুর পাহারা দেয়ার জন্য কুকুর পালিত হলে ভিন্ন কথা। (বুখারী ও মুসলিম )

মুসলিম শরীফের অপর বর্ণনায় রয়েছে, যে ব্যক্তি শিকার করা এবং গবাদি পশু ও ক্ষেতের রক্ষা করার উদ্দেশ্য ছাড়া অন্য কোন উদ্দেশ্যে কুকুর পালন করে তার পুণ্য হতে দৈনিক দুই কিরাত পরিমান পুণ্য কমে যায়।


 

Was this article helpful?

Related Articles

Leave A Comment?