ভাল কিংবা খারাপ পথ উদ্ভাবনকারীর বিবরণ

ভালো কিংবা মন্দ পন্থা উদ্ভাবন

মহান আল্লাহ বলেনঃ

আর যারা বলে, আমাদের প্রভু! তুমি আমাদের এমন স্ত্রী ও সন্তান-সন্ততি দান করো, যাদেরকে দেখে আমাদের চোখ জুড়িয়ে যায়। এবং আমাদেরকে মুত্তাকীদের নেতা বানাও। (সূরা ফূরকানঃ ৭৪)

মহান আল্লাহ আরো বলেনঃ

আর আমি তাদেরকে (নবীগণকে) নেতা (ইমাম) হিসেবে নিযুক্ত করেছি। তারা আমার নির্দেশ (হুকুম) মুতাবেক লোকদেরকে সুপথে পরিচালিত করে। (সূরা আম্বিয়াঃ ৭৩)

 

১৭১. হযরত আবু উমর জারীর ইবনে আবদুল্লাহ (রা) বলেন, একদা আমরা দিনের প্রথম ভাগে রাসূলে আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নিকটে বসা ছিলাম। তখন একদল লোক তাঁর কাছে উপস্থিত হলো। তাদের শরীর ছিলো উলঙ্গ। ছেঁড়া চট কিংবা আবা পরিহিত ছিল তারা। তাদের কোমরে তরবারিও ঝুলানো ছিলো। তারা ছিল মুদার বংশের লোক। তাদের দারিদ্র্যের চিহ্ন দেখে রাসূলে আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের চেহারার রং বদলে গেল। এরপর তিনি ঘরের ভেতরে ঢুকলেন। কিছুক্ষণ পর বেরিয়ে এসে তিনি বেলাল (রা) কে আযান দিতে বললেন। বেলাল (রা) যথারীতি আযান ও ইকামত দিলেন। তারপর রাসূলে আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নামায শেষ করে এক ভাষণে বললেনঃ ‘হে জনগণ! তোমাদের প্রভু (রব্ব) কে ভয় করো, যিনি তোমাদেরকে একটি প্রাণ থেকে সৃষ্টি করেছেন এবং তা থেকে সৃষ্টি করেছেন তার জুড়ি। আর এতদুভয় থেকে অনেক পুরুষ ও নারীকে ছড়িয়ে দিয়েছেন (পৃথিবীর বুকে)।   সে আল্লাহকে ভয় করো, যার দোহাই পেড়ে তোমরা একে অপরে নিজ নিজ অধিকার দাবী করো। আর তোমরা আত্মীয়তা সম্পর্ক বিনষ্ট করা থেকে বিরত থাকো। আল্লাহ অবশ্যই তোমাদের ওপর কড়া দৃষ্টি রাখছেন। (সূরা নিসাঃ ১) তিনি সূরা হাশরের শেষভাগে নিম্নোক্ত আয়াতটি পড়লেনঃ ‘হে ঈমানদারগণ! তোমরা আল্লাহকে ভয় করো। আর প্রতিটি ব্যক্তি যেন খেয়াল রাখে যে, সে ভবিষ্যতে (আখেরাতে) জন্য কি ব্যবস্থা করে রেখেছে। তোমরা কেবল আল্লাহকেই ভয় করে চলো। তোমরা যা কিছু করছো আল্লাহ তার খবর রাখেন। (সূরা নিসাঃ ১৮)। (তারপর তিনি বললেনঃ ‘প্রত্যেক ব্যক্তির উচিত যেন সে তার স্বর্ণমুদ্রা (দিনার), তার রৌপ্যমুদ্রা (দিরহাম),  তার পোশাক এবং তার খাদ্য (গম ও খেজুর) থেকে দান করে।’ এমনকি, তিনি একথাও বলেন যে, এক টুকরা খেজুর হলেও তা দান করো। এরপর জনৈক আনসারী একবস্তা (থলি) খেজুর নিয়ে এলো। বস্তাটি বয়ে আনতে তার খুবই কষ্ট হচ্ছিলো। তারপর লোকেরা সে বস্তা থেকে একের পর এক দান করতে লাগলো। শেষ পর্যন্ত আমি শুধু কাপড় ও খাদ্যের দুটি স্তূপ দেখতে পেলাম। এমনকি, রাসূলে আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের চেহারার নূর পর্যন্ত উজ্জল হয়ে উঠল। তা যেন সোনালী রং -এ পরিবর্তিত হয়ে যাচ্ছিলো। রাসূলে আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তখন বললেনঃ যে ব্যক্তি ইসলামে কোন ভালো নিয়মের প্রচলন করে, সে তার বিনিময় পাবে এবং তারপরে যারা সে নিয়ম অনুযায়ী কাজ করবে তার বিনিময়ও সে পাবে; কিন্তু এতে তাদের বিনিময় কিছুমাত্র হ্রাস পাবে না। আর যে ব্যক্তি ইসলামে কোন মন্দ নিয়ম চালু করে, তার ওপর এর সমগ্র (গুনাহ্‌র) বোঝা চেপে বসবে। কিন্তু এতে তাদের বোঝা কিছুমাত্র কম হবে না। (মুসলিম)


১৭২. হযরত ইবনে মাসউদ (রা) বর্ণনা করেন, রাসূলে আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ ‘যে ব্যক্তিই অন্যায়ভাবে নিহত হবে, তার রক্তপাতের দায়িত্ব আদম (আ)-এর প্রথম হত্যাকারী সন্তানের (কাবীল) ওপর বর্তাবে। কারণ সে-ই প্রথম ব্যক্তি, যে হত্যার নিয়ম চালু করেছে। (বুখারী ও মুসলিম)


 

Was this article helpful?

Related Articles

Leave A Comment?