পানি পান করার শিষ্টাচার, তিন নিঃশ্বাসে পানি পান করা মুসত্মাহাব, পানপাত্রের বাইরে নিঃশ্বাস ফেলা, পানপাত্রে নিঃশ্বাস ফেলা মাকরূহ, পানপাত্র প্রথম ব্যক্তির পর ডান দিকে বিতরণ করতে হয়

পানি পান করার আদব ইত্যাদি

৭৫৭. আনাস (রা) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (সা) পানি পান করার সময় তিনবার শ্বাস নিতেন।  (বুখারী, মুসলিম)


৭৫৮. ইবনুল আব্বাস (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা) বলেছেনঃ তোমরা উটের ন্যায় এক নিঃশ্বাসে পানি পান করো না, বরং দুই তিনবার (শ্বাস নিয়ে) পান কর। আর বিসমিল্লাহ পড়ো যখন তোমরা পানি পান শুরু করো এবং ‘আলহামদু লিল্লাহ’ বল, যখন পান করা শেষ করো। (তিরমিযীঃ পানীয় অধ্যায়। শাইখ আলবানী(রা)-এর নিকট হাদীসটির সনদ দুর্বল।)


৭৫৯. আবু কাতাদা (রা) থেকে বর্ণিত। নবী (সা) পাত্রের মধ্যে নিঃশ্বাস ফেলতে নিষেধ করেছেন। (বুখারী, মুসলিম)


৭৬০. আনাস (রা) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (সা)-এর নিকট দুধ আনা হল, যাতে কিছু পানিও মেশানো ছিল। তাঁর ডান দিকে ছিল এক বেদুঈন এবং বাম দিকে ছিলেন আবু বকর (রা)।  তিনি কিছু দুধ পান করলেন, তারপর ঐ বেদুঈনকে দিলেন এবং বললেনঃ ডান দিক থেকে ডান দিক থেকে। (বুখারী, মুসলিম)


৭৬১. সাহল ইবনে সা’দ (রা) থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ (সা)-এর সামনে পানীয় আনা হলে তিনি তা থেকে কিছু পান করলেন। তার ডানে ছিল একটি বালক এবং বামে ছিল  বৃদ্ধ প্রাপ্তবয়ষ্করা। তিনি বালকটিকে বলেনঃ তুমি কি আমাকে এদের আগে দেয়ার অনুমতি দেবে? বালকটি বলল, না, আল্লাহর শপথ! আপনার তরফ থেকে আমার জন্য নির্ধারিত অংশের ব্যাপারে আমি কাউকে অগ্রাধিকার দিব না। অতঃপর রাসূলুল্লাহ (সা) পিয়ালাটি বালকটির হাতে দিলেন। (বুখারী, মুসলিম)


 

Was this article helpful?

Related Articles

Leave A Comment?