আরাফার দিনের ফযীলত ও হাজীদের নিয়ে আল্লাহর গর্ব করা

১০০. আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা বলেন: রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন:

“আরাফার দিন ব্যতীত কোনো দিন নেই যেখানে আল্লাহ তা‘আলা অধিক বান্দাকে জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্ত করেন। তাতে তিনি নিকটবর্তী হন অতঃপর ফিরিশতাদের সাথে গর্ব করেন ও বলেন: তারা কি চায়?” (সহীহ মুসলিম) হাদীসটি সহীহ।


১০১. জাবের রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন:

“যিলহজ মাসের দশ দিন থেকে উত্তম আল্লাহর নিকট কোনো দিন নেই”। তিনি বলেন: এক ব্যক্তি বলে: হে আল্লাহর রাসূল, এ দিনগুলোই উত্তম, না এ দিনগুলো আল্লাহর রাস্তায় জিহাদসহ উত্তম? তিনি বললেন: “জিহাদ ছাড়াই এগুলো উত্তম। আল্লাহর নিকট আরাফার দিন থেকে উত্তম কোনো দিন নেই, আল্লাহ দুনিয়ার আসমানে অবতরণ করেন অতঃপর যমীনে বাসকারীদের নিয়ে আসমানে বাসকারীদের সাথে গর্ব করেন। তিনি বলেন: আমার বান্দাদের দেখ, তারা হজের জন্য এলোমেলো চুল ও ধূলিময় অবস্থায় দূর-দিগন্ত থেকে এসেছে। তারা আমার রহমত আশা করে, অথচ তারা আমার আযাব দেখে নি। সুতরাং এমন কোনো দিন দেখা যায় না যাতে ‘আরাফার দিনের তুলনায় জাহান্নাম থেকে অধিক মুক্তি পায়”। (ইবন হিব্বান) হাদীসটি হাসান লি গায়রিহী।


১০২. আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন:

“আল্লাহ তা‘আলা আরাফার লোকদের নিয়ে আসমানের ফিরিশতাদের সাথে গর্ব করেন, তিনি বলেন: আমার বান্দাদের দেখ তারা এলোমেলো চুল ও ধূলিময় অবস্থায় আমার কাছে এসেছে”। (ইবন হিব্বান) হাদীসটি সহীহ লি গায়রিহী।


 

Was this article helpful?

Related Articles

Leave A Comment?